বিশ্বের সবথেকে দ্রুত আর আজব দশটি যানবাহন

হ্যালো বন্ধুরা আমরা সাধারণত এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় যেতে যানবাহন ব্যবহার করে থাকি। যাতে আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রা আরো একটু সহজ হয়ে যায়। আর এই জীবনযাত্রাকে আরও সহজ করতে বিজ্ঞানীরা প্রতিনিয়তই আবিষ্কার করে চলছে নতুন নতুন সব যানবাহন। আজকের এই পোষ্টে আমরা এরকমই দশটি ইনভেনশন নিয়ে হাজির হয়েছি তো চলুন আর দেরি না করে শুরু করা যাক।

হোভারবোর্ড

মাটি থেকে কিছু সেন্টিমিটার ওপরে চালিত এই হোভারবোর্ড এক অদ্ভুত ভেহিকেল । এটার বর্ডারে চারটি ডিস্ক shape মোটর লাগানো থাকে। যার ম্যাগনেটিক ফিল্ড তৈরি করে থাকে । আর এটাই বোর্ডটিকে মাটি থেকে শূন্যে ভাসিয়ে রাখে।

ডাবল রাউনড স্কেটবোর্ড

যে কোন সাধারণ স্কেটবোর্ড থেকে এই ডাবল রাউনড স্কেটবোর্ড একটু আলাদা। এটাতে আপনি আপনার পা দুটোকে আলাদা আলাদা ভাবে মুভ এবং টার্ন করাতে পারবেন। স্কেট ডিভাইসটিতে 25 সেন্টিমিটার ডায়ামিটার দুটি উইল লাগানো আছে। আর পা রাখার জন্য চওড়া প্লাটফর্মে রাখা হয়েছে। যাতে ব্যবহারকারী কমফোর্ট ফিল করে।

আরও পড়ুনঃ জল্লাদ ফাঁসির আসামির কানে কি বলে?

ওয়ান উইল ইলেকট্রিক স্কেটবর্ড

ওয়ান উইল ইলেকট্রিক স্কেটবর্ড একটি স্লেফ ব্যালান্সিং ইউনি সাইকেল ইলেকট্রিক স্কেটবোর্ড। সহজ ভাষায় এটা অ্যাডাল্ট এবং টিনএজ ছেলেমেয়েদের জন্য খুবই উপযোগী। এটার গতি 19 কিলোমিটার পার আওয়ার।

AEYO

এই স্কুটার বাইক আর স্কেটবোর্ডের সংমিশ্রণে তৈরি এটা একটা বিশেষ ভেহিকেল। এটা দেখতে একটু অদ্ভুত এবং এটা তৈরি করার জন্য বিজ্ঞানীদের অনেক সময় আর রিচার্জের প্রয়োজন হয়েছে।

Half Bike

Half বাইক চালানোর সময় আপনার মনে হবে আপনি একসাথে হাঁটছেন আর সাইকেল চালাচ্ছেন। কারণ এই বাইকটি চালানোর জন্য আপনাকে দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে পেডেল করাতে হয়। আর যার কারণে এটি বডি মুভমেন্টের সাথে আরো বেশি এডজাস্টমেন্ট করে নিতে পারে। এবং আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি এই বাইকটা চালানোর সময় রাস্তার সবাই আপনার বাইকের দিকেই তাকিয়ে থাকবে।

JetPack

জেড পেক একটি অন্য রকম মজাদার ভেহিকেল। এ পর্যন্ত পৃথিবীতে অনেক ধরনের জেটপাক ডিজাইন করা হয়েছে। দুর্ভাগ্যবশত সেগুলো এখনো মার্কেটে এভেলেবেল না। নিউজিল্যান্ডের একটি কোম্পানি মার্কিন এয়ারক্রাফট অবশ্য এ বছরই JetPack মার্কেটের আনার প্রমিস করেছে। এর সাহায্যে মানুষ আকাশে ওড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে চলেছে।

Air Bike

এটা চালানোর সময় আপনার পায়ের নিচে পানি আছে নাকি মাটি আছে নাকি কিছুই নেই তা জানার কোন প্রয়োজন নেই। কারণ এগুলোর কোনোটি এই বাইকের প্রয়োজন পড়ে না। অর্থাৎ বাইকটি শূন্যের মাধ্যমে চলে। বাইকটি দুটি রোটারি ইঞ্জিনের মাধ্যমে চলে। যা দুটি বড় ফ্যানের সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে। এবং বাতাসের বিপরীতমুখী চাপ এর মাধ্যমে চলে থাকে। বাইকটির সর্বোচ্চ Speed 70 কিলোমিটার পার আওয়ার। এটা আপনার আকাশে ওড়া স্বপ্নকে বাস্তবে রূপ দেবে । তাও আবার কোন ধরনের লাইসেন্স ছাড়াই। টাকা কনভার্ট করলে বাইকের মূল্য আসবে মাত্র 68 লক্ষ টাকা।

সুটকেস স্কুটার

লাগেজ ক্যারি করার জন্য চায়নাতে এই বিশেষ ধরনের সুটকেস স্কুটার তৈরি করা হয়েছে। এটার মাধ্যমে শুধু আপনার সুটকেসই না এবং আপনিও এটাতে চলতে পারবেন। এটা সর্বোচ্চ স্পিড 19 কিলোমিটার পার আওয়ার । একসাথে দুইজন ব্যক্তি চলতে পারে। আর বাইকটি একবারের ফুলচার্জে 59 কিলোমিটার পর্যন্ত মাইলেজ পাবেন।

Segway

এই দুই চাকা বিশিষ্ট ইলেকট্রিক স্কুটার একটু আলাদা। এটি যে কোন সাধারন পরিস্থিতি দ্রুত চলাফেরা করতে সাহায্য করে। এটি 2 কিলোমিটার পার আওয়ার স্পিডে চলতে পারেন। আর ফূল চার্জে 40 কিলোমিটার পর্যন্ত মাইলেজ পাবেন।

One Wheel Scooter

one wheel self ব্যালেন্সিং স্কুটারটি ওজন মাত্র 9 দশমিক 8 কেজি। স্কুটারটি একটি হ্যান্ডেলার, দুটি ফুড রেস্ট রয়েছে। স্কুটারটি ১৬ কিলোমিটার পার আওয়ার স্পিডে চলতে সক্ষম। আর এটা কে ফুল চার্জ করতে মাত্র 1 ঘণ্টা 20 মিনিট লাগে।

Leave a Comment