বিশ্বের সবচেয়ে অদ্ভুত ও আজব 5 টি প্রাণী

ছোটবেলায় আমাদের প্রায় সবারই পছন্দের পোষা প্রানী থাকে। কিন্তু আস্তে আস্তে বড় হওয়ার সাথে সাথে সেই পোষা প্রাণী গুলো আমাদের জীবন থেকে হারিয়ে যায়। বড় হয়ে গেলে আমরা আর সেই প্রাণীকে মনে রাখি না। তবে বড় হয়ে যাবার পর আমাদের কাছে বিভিন্ন প্রাণী অনেক কৌতূহলের বিষয় হয়ে রয়ে যায়। সেই কৌতূহল থেকে আজ আমরা আপনাদের জানাবো পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুততম কচ্ছপ থেকে শুরু করে সবচেয়ে বেশি চুলওয়ালা ভেড়া সম্পর্কে। আজ আমরা এই পোষ্টে এমন ৫ টি রেকর্ড সম্পর্কে জানাবো।

৫. World Shortest Horse

আপনারা হয়তো জীবনে এমন অনেক লোক দেখেছেন যাদের উচ্চতা হওয়ার কারণে তাদেরকে বামন বলা হয়। কিন্তু আপনি আপনার জীবনে কখনো বামন  হোড়া দেখেছেন? 

আপনারা এখন যেই স্ত্রী ঘোড়াটিকে দেখছেন এটা পৃথিবীর সবচেয়ে খাটো ঘোড়া। এটার নাম থাম্বেলিনা। এর উচ্চতা ১৭.৫ ইঞ্চি।  আর ওজন ২৬ কিলোগ্রাম।

থাম্বেলিনার মালিক মাইকেল গসলিংয়ের ভাষ্যমতে থাম্বেলিনার জন্ম তাদের জন্য সারপ্রাইজ ছিল। তারা কখনো আশা করেনি যে এত খাটো ঘোড়া  জন্ম নিতে পারে। 

গিনেস বুক অনুযায়ী থাম্বেলিনা পৃথিবীর সবচেয়ে ছোট ঘোড়া। এই ঘোড়াটি একটি সাধারন বিড়ালের মত। আর এই ঘোড়াটি এতটাই কিউট যে ছোট বাচ্চারা এটার সাথে না খেলে থাকতে পারে না।

আরও পড়ুনঃ বিশ্বের সবচেয়ে অদ্ভুত ও আজব 5 টি পদার্থ

৪.Fastest Tortoise in the World

আপনারা সবাই কচ্ছপ ও খরগোশের গল্প তো শুনেছেন। যেখানে দ্রুততম খরগোশকে  অলস কচ্ছপ একটি নাম্বার দৌড় প্রতিযোগিতায় হারিয়ে দেয়।

আর এই গল্পের সারমর্ম ছিল এটাই যে অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস আপনাকে পেছনে ফেলে দিতে পারে। আর এই গল্প থেকে আরো আরো জানতে পারি কচ্ছপের দৌড় এর গতি খুব কম হয়ে থাকে।

তাহলে একটি কচ্ছপ যদি দৌড় প্রতিযোগিতার বিশ্ব রেকর্ড করে ফেলে তাহলে এটা একটু চিন্তার বিষয় হবে তাই নয় কি?  বাড়টি নামের এই কচ্ছপটি অন্য সাধারন কচ্ছপের চেয়ে দুইগুণ জোরে দৌড়ে গিনেজ বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে জায়গা করে নিয়েছে।

এই কচ্ছপটি 1 ঘন্টায় 0.6 মাইল গতি অর্জন করে। হয়তো আপনারা এই কথাটি শুনে হাসবেন কিন্তু এই গতি যে অন্য কোন সাধারন কচ্ছপ এর চেয়েও দুই গুণ বেশি। আর এই কারণে বাড়টিকে কচ্ছপ দের উসাইন বোল্ট বলা হয়।

৩. A Dog With Longest Ear

সাধারণত পোষা প্রাণীরা ঘরের একজন সদস্যের মতোই হয়ে থাকে তারা আমাদের ঘরবাড়িতে বাড়তি নিরাপত্তার সাথে সাথে আমাদের মনোরঞ্জনও করে।

যদি কোন পোষা প্রাণী আমাদের বিখ্যাত বানিয়ে দেয় তাহলে কেমন হবে? এই হল হারবার। এই কুকুরটির লম্বা কান এর মালিকে বিখ্যাত বানিয়ে দিয়েছে। আমেরিকায় বসবাস করা এই কুকুরটি পৃথিবীর সবচেয়ে লম্বা কানওয়ালা কুকুর।

এই কুকুরটির বাম ককান ১২.২৫ ইঞ্চি। আর ডানকান সাড়ে 13 ইঞ্চি। এই কান এতটাই লম্বা যে এর উচ্চতা পৃথিবীর সবচেয়ে খাটো মানুষ এর অর্ধেক। এ থেকেই বোঝা যায় এই কুকুরদের কান কতটা লম্বা।

এই কুকুরটির কান কখনো খারা হয় না। অনেক ওজন হওয়ার কারনে এটা সবসময় নিচের দিকে ঝুকে থাকে।

২. A Dog With Skateboarding Skill

এই পোস্টটি পড়ার পূর্বে আপনারা হয়তো সবাই জানতেন যে স্কেট বোর্ডিং শুধু মানুষই করতে পারে। কিন্তু আমাদের এই চিন্তা কিন্তু এখনই পাল্টে যাবে।

ওত্তো নামের এই কুকুরটি পেরুতে বসবাস করে। সে শুধু স্কেট বোডিংই করেনা স্কেট বোর্ডিং করে সবচেয়ে লম্বা হিউম্যান ট্যানেল পার করেছে। তার রেকর্ড টি দেখার জন্য একটি বিশেষ কার্যক্রম এর আয়োজন করা হয়েছিল।

গিনিস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ড কারীরা এটা দেখতে চেয়েছিল যে তিন বছর বয়সী এই বুল ডগটি কিভাবে কোন ব্যক্তির সাথে স্পর্শ করা ছাড়াই একটি বিশাল লম্বা হিউম্যান ট্যানেল পার করে।

হাজার হাজার দর্শক এই ঘটনার সাক্ষী হয়ে থাকে যে কিভাবে এই তিন বছরের কুকুর কোন মানুষের স্পর্শ ছাড়াই হিউম্যান ট্যানেল পার করেছে।

১. Wooliest Sheep in the World

আপনারা যদি কেউ ভেড়া পালন করেন তারা খুব ভালো করে জানেন যে যদি সময় মত ভেড়ার পশম কাটা না হয় তাহলে কি হতে পারে অস্ট্রেলিয়ান একটি ভেড়া তার দল থেকে আলাদা হয়ে গিয়েছিল।

৬ বছর পর ভেড়াটিকে অপরিচিত কিছু লোকজন খুঁজে পায়। লোকজন যখন ভেড়াটিকে দেখে তখন এর লম্বা পশম দেখে সবাই অবাক হয়ে যায়।  ভেড়াটির শরীরের পশম এর মাত্রা এত ছিল যে ঠিকমতো হাঁটতে পারছিল না এমনকি সে চোখে দেখতে পারছিল না।

ভেড়াটি তার শরীরে ২০ কেজির বেশি পশম নিয়ে হাঁটাচলা করছিল। যখন তার শরীর থেকে পশম আলাদা করা হয় তখন পশমের ওজন ২৩ কেজি। এত পশম দিয়ে কম করে হলেও 10 জন মানুষের সোয়েটার বানানো যেত। আর এই কারনেই এই ভেড়াটি অনেক মানুষের আকর্ষণের কেন্দ্র হয়ে যায়।

বিভিন্ন প্রাণীদের করা এই ওয়ার্ল্ড রেকর্ড গুলি আপনাদের কাছে কেমন লাগলো তা আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না। অবশ্যই শেয়ার করবেন।

Leave a Comment