কিছু আচার্যজনক ট্র্যাক

হ্যালো বন্ধুরা,

আমরা রাস্তা ঘাটে প্রতিদিন অনেক গাড়ি দেখে থাকি। কিন্তু ভবিষ্যতে আমাদের জন্য ডিজিটাল এবং এডভ্যান্স টেকনোলজি সম্পূর্ন এমন কিছু গাড়ি আসছে যা আপনারা কল্পনাও করতে পারবেন না। এই গাড়ি গুলো খুব তাড়াতাড়ি বাজারে পাওয়া যাবে। তার সাথে সাথে এই গুলো যাতায়াত ব্যবস্থাকে আরো সহজ ও সুরক্ষা করে তুলবে। এই পোষ্টে আমরা এমনি কিছু গাড়ি সম্পর্কে জানতে চলেছি। 

Mercedes-Benz ফিউচার বাস

mercedes-benz ফিউচার বাস ভবিষ্যতের জন্য এমনভাবে তৈরি করা হচ্ছে, যা আপনাকে কন্ট্রোল করতে হবে না। এটা নিজেই নিজেকে কন্ট্রোল করবে। যেটাতে আছে সিটি পাইলট মুড । Highway এর পাইলট মুড যা নিজে থেকে স্টিয়ারিং কন্ট্রোল করতে সক্ষম। নিজে থেকেই ইলেকট্রনিক ভাবে কন্ট্রোল করার জন্য এতে লাগানো হয়েছে সামনে এবং পিছনে অনেক বড় ক্যামেরা । এটা সামনে যদি কেউ এসে পড়ে, তবে তাকে নিজস্বতা Radar System প্রক্রিয়া সাবধান করে থাকে।

এটার সামনে থেকে আসা কাউকে বাঁচানোর জন্য নিজস্ব ইন্টিরিয়ার ডিজাইন অনেক ভালোভাবে কাজ করে। এটাতে বসার সিট অন্যান্য বাসের মতো নয়।  এটাতে অনেক স্পেস এবং কম্ফোর্টেবল সিটের ব্যবস্থা রয়েছে । যার ফলে আপনি অনেক আরামদায়কভাবে এবং Safe ভাবে আপনার Journey সম্পন্ন করতে পারবে।

এটাতে আপনি আপনার স্মার্টফোনকে চার্জ দিতে পারবেন এবং ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। এর ভেতর থেকে বাহিরে অনেক সুন্দর ভাবে দেখা যায়। এটা বাহিরে থাকে দেখতে অনেক বড। এটার গেট ইলেক্ট্রনিক কন্ট্রোল এর মাধ্যমে খোলে এবং বন্ধ হয়। ফলে আপনাকে কষ্ট করে উঠতে হবে না।  যার ফলে আপনি আরামদায়কভাবে আপনি সফর সম্পন্ন করতে পারবেন। এটার ড্রাইভারও বাসে আরাম করে বসে বাস নিয়ন্ত্রন করতে পারবে।

আরও পড়ুনঃ কি হয়েছিল চাঁদে লাগানো পৃথিবীর প্রথম চারা গাছটির

Willie

যখন আমরা আমাদের স্মার্টফোনের ভিডিও এবং মুভি দেখি তখন আমরা ভাবি এটা যদি বড় Screen এর উপর হতো তবে আমরা ভালোভাবে দেখতে পারতাম। স্মার্টফোনের চেয়ে অনেক বেশি Screen যদি বাস এবং এর গ্রাফিক যদি এতটা আচার্যজনক হয় তবে এতে মানতেই হবে আমাদের শরীরের এক অন্য ধরনের কম্পন সৃষ্টি হবে।

যদি কেউ এটা বাইরে থেকে দেখে তবে তার চোখ এটার উপরে আটকে যাবে । এইবাস অ্যাডভার্টাইজমেন্ট এর জন্য এটি অনেক বড় সম্ভাবনা । বাস কখনো এক জায়গায় থেমে থাকে না । যার ফলে এই বাসে সুবিধা হলো Highway তে চলতে চলতে এর পিছনে কিছু অ্যাডভার্টাইজমেন্ট করতেই থাকে।

Mercedes future truck

বন্ধুরা আপনারা সবাই টারজান মুভি সবাই দেখেছেন। যেখানে গাড়ি ড্রাইভার ছাড়া চলাচল করে। এইখানে আমরা কোন ছোট গাড়ির কথা বলছি না। আমরা বলছি বড় ট্রাক এর কথা। এটা ঠিক ড্রাইভার ছাড়া ইলেক্ট্রিক ভাবে কন্টোল হয়ে থাকে। যদি ড্রাইভার কখনো ঘুমিয়ে পড়ে তখন গাড়িটি খুব সাবধনাতারসহিত চলতে পারে। 

এই টেকনোলজি কত চমকপ্রতভাবে কাজ করে তা প্রথমেই বলেছি। কিন্তু আরামদায়ক ড্রাইভিং এবং Transportation এর জন্য খবুই গুরুত্ব পূর্ন ভূমিকা পালন করবে। 

ভবিষ্যতের উপর নির্ভর করে এই ট্রাকে এক্সপেরিয়ার ডিজাইন অনেক হাইটেক সমৃদ্ধ। বাইরে থেকে দেখতে এটা একটা হাইটেক মেশিনের মত লাগে । 

বাইরে থেকে দেখতে এটা একটা Luxury গাড়ির মতো মনে হয়। যা দেখতে অনেক সুন্দর। পৃথিবীর সবচেয়ে পুরাতন গাড়ি বানানোর কোম্পানির Mercedes ভবিষ্যতের জন্য এই কনসেপ্ট তৈরি করেছে।

tesla semi truck

এই ট্রাকতো অবশ্যই অনেক আশ্চর্যজনক হতেই হবে । কেননা এটা টেসলা কোম্পানির ট্রাক। এটা পৃথিবীর সবচাইতে কম্ফোর্টেবল ট্রাক।  এই ট্রাক সবসময় লিস্টের উপরে থাকে। যাতে চারটি ইন্ডিপেন্ডেন্স মোটর ব্যবহার করা হয়েছে । ব্যাটারি সিস্টেম এবং পাওয়ার সিস্টেম ইলেকট্রনিক্স চার্জ এর মাধ্যমে পরিচালিত হয়। ফুল চার্জে এটা একটানা ৮৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত চলতে সক্ষম হবে।

যার ফলে আমাদের ফুয়েল সিস্টেমের ব্যবহার এতটা কমে যাবে যে আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। আমরা অনেক বেশি পরিবেশবান্ধব হয়ে যাব। যা আমাদের পরিবেশের জন্য কল্যাণ বয়ে আনবে । আর এই বাস চার্জ হতে খুব বেশি সময় প্রয়োজন পড়ে না। মাত্র 30 মিনিটে এটা ৮০% চার্জ হয়ে যায়। এটা দেখতে হুবুহু normal ট্রাক এর মতো নয় । এটা ডিজাইন এটাকে এত সুরক্ষিতভাবে চালাতে এবং আরামদায়ক ভাবে Journey সম্পূর্ন করতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

Leave a Comment