পৃথিবীর সবথেকে বুদ্ধিমান কুকুর !

বন্ধুরা কুকুর অনেক বিশ্বস্ত প্রাণী ।  মানুষের সঙ্গী হয়ার জন্য মানুষ এদের অনেক Training দিয়ে থাকে। আমাদের চার পাশে এমন অনেক মানুষ আছে যারা কুকুর পছন্দ করে না। যদি আপনার কুকুর পছন্দ না হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে এই পোষ্টটি সম্পূর্ণ পড়তে হবে। কারণ  এই পোষ্ট টি পড়ার পর আপনি কুকুর কে পছন্দ করা শুরু করবেন।

বন্ধুরা আপনি কি কখনো কোনো কুকুরকে ঘোড়সওয়ারী করতে দেখেছেন। এই পোষ্টটি লিখার আগে আমিও বিশ্বাসই করতে পারতাম না যে কখনও কোন কুকুর ঘোড় সওয়ারী করতে পারে। বন্ধুরা এখন আপনাকে দেখতেই পাচ্ছেন যে কিভাবে একটি কুকুর একটি ঘোড়া কে টানতে টানতে সামনের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। দেখুন কুকুরটি কিভাবে ঘোড়ার পিঠে চড়ে ঘোড়াটিকে চালাতে থাকে।

এই পোষ্টটি দেখে আপনারা অবাক হয়ে যাবেন কেননা এই কুকুর শুধুমাত্র একটি কুকুরি না আপনার ঘরের ভেতরে বিভিন্ন কাজ করার একজন সঙ্গী। ঘরের এমন কোন কাজ নেই যে এই কুকুর করতে পারে না।

ঘর পরিষ্কার করা হোক ময়না পরিষ্কার করা হোক বা সুপার মার্কেটে যাওয়া হোক সব কাজ খুব সহজেই এই কুকুরটি করে ফেলে। বন্ধুরা শুধু এটুকুই না এই কুকুর ব্রেকফাস্ট টেবিলে ব্রেকফাস্ট তৈরি করে রাখে। আর ঘর এতটাই পরিষ্কার করে রাখেন যা আপনারা দেখতে পাচ্ছেন।

আমরা মনে করি কুকুর আমাদের মুখের ভাষা বুঝতে পারে না কুকুর শুধু তাদের ভাষায় বুঝতে পারে। এখন আপনাকে এমন একটি ভিডিও দেখাও যেটাতে কুকুর মানুষের মুখের ভাষা বুঝতে পারে। এখন আপনারা যে কুকুরটি দেখতে পাচ্ছেন এই কুকুরটিকে এর মালিক কিছুদিন ট্রেনিং দিয়েছে। এতে করে কুকুরটি তার মালিকের মুখের ভাষা বুঝতে পারে। মালিক বলার সাথে সাথেই কুকুরটি ডানে তাকায় আবার বামে তাকায় । উল্টো দিকে হাটতে থাকে আর কোনকিছু খুব সহজেই করে ফেলে । পানির উপরে সারফিং করা ব্যাকফ্লিপ করা স্কেটিং করা এমন আরও অনেক কাজেই কুকুরটি খুব সহজেই করে ফেলায়।

আরও পড়ুনঃ পৃথিবীর কোন জেলেই এই ব্যক্তিকে আটকে রাখতে পারেনি

বন্ধুরা আপনারা তো সেই গল্পটি অবশ্যই শুনে থাকবেন যে একটি কাকের তৃষ্ণা লেগেছিল এবং সে দেখতে পেয়েছিল একটি পাত্রে নিচে অনেক পানি আছে ।  তখন সে কাকটি পাথরের টুকরো ফেলে পানীয় পান করেছিল। গল্পটি বলার কারণ হলো বুদ্ধিমান শুধু মানুষই হয় না বুদ্ধিমান অন্য কিছু প্রানীও হয়ে থাকে। বন্ধুরা আপনারা দেখতে পাচ্ছেন কুকুরের সঙ্গে তিনটি বোতলে খাবার রাখা আছে কিন্তু খাবার খেতে কুকুরকে তার বুদ্ধি ব্যবহার করতে হবে এই কুকুর এতটাই বুদ্ধিমান যে খুবই বুদ্ধিমত্তার শহীদ কুকুরটি তার খাবার বের করে নেয়।

ভারতীয় সংস্কৃতিতে খাবার গ্রহণের আগে শ্লোক বলা একটি প্রথা । এই প্রথা কারও কারও মতে পালন করা হয় আবার কারো কারো মধ্যে পালন করা হয় না। এই ফুটেছে আমরা এমন একটি কুকুর সম্পর্কে জানব যে খাবার আগে তার স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা করে নেয়। হ্যাঁ ঠিকই দেখছেন স্রষ্টার কাছে প্রার্থনা শুধুমাত্র মানুষই করে না কিছু কিছু প্রাণীও করে থাকে।

বলা হয়ে থাকে অপেক্ষার ফল মিষ্টি করে থাকে কিন্তু এই অপেক্ষাটা যদি কোন প্রাণী করে থাকে তবে বলতেই হয় এটা অনেক বেশি কিছু ।সত্যিই এই পোষ্টটি দেখে অনেক অবাক হতে হয় কারণ যতক্ষণ না পর্যন্ত কুকুরগুলোর মালিক এদেরকে খাবার খাওয়ার জন্য নাম না ধরে ডাকে ততক্ষণ পর্যন্ত এই কুকুরগুলো খাবারের জন্য অপেক্ষা করতে থাকে।

আপনারা হয়তোবা এমন সন্তান কে দেখেছেন যে তার কঠিন সময়ে তার মায়ের যত্ন নেয়। কিন্তু আপনারা হয়তোবা এমন কুকুরকে দেখেননি যে তার মালিকের সেবা করে থাকে। কোল্টি এমন একটি কুকুর যাকে যেমনভাবে ট্রেনিং দেওয়া হয়েছে যাতে করে কুকুরটি তার নিজের মালকিনকে নিজের মা মনে করে থাকে এবং সে তার সেবা করতে পারে। কোল্টির মালকিনের মাথায় সমস্যা এর জন্য কোল্টি মালকিনকে কোল্টির খুব প্রয়োজন পড়ে।

কোল্টির মালকিন যখন বেহুশ হয়ে পড়ার মতো হয়ে পড়ে তখন কোল্টি খুব সাবধান হয়ে যায়। এবং তা সেবা করার জন্য দৌড়াদৌড়ি শুরু করে দেয় কোল্টি তার মালকিনকে খুব সকালে ডেকে তোলে যদি মালকিন না ওঠে তবে কোল্টি মালকিনের বুকে কান পেতে তার হার্টবিট শুনতে থাকে। কোনটি মালকিনের চলাচলের জন্য মালকিনের হুইল চেয়ার ধরে টেনে নিয়ে যায়। বন্ধুরা সত্যি বলতে মায়ের এত যত্ন কোন সন্তান মনে হয় আজকের দিনে করে না।

Leave a Comment