বিশ্বের সব থেকে বড় বিমান

বন্ধুরা আমরা প্রতিনিয়ত বিভিন্ন আকার আকৃতির বিমান দেখে থাকি। যখন আমরা কোন বিশাল আকারের কোন বিমানের কথা শুনি তখন অবাক হয়ে যাই। আমাদের পৃথিবীতে এমন অনেক বিমান আছে, যার আকার এবং ওজন সম্পর্কে জানলে আপনারা অবাক হয়ে যাবেন। আজকেই এই পোষ্টে এমন কিছু বিশাল আকৃতির বিমান গুলো সম্পর্কে জানতে চলেছি।

Stratolaunch

এই বিমানটি দেখলে মনে হবে দুটি বিমান একসাথে করা হয়েছে । এই বিমানটি অনেক স্কিল সমৃদ্ধ । এটার দুই পাশে যে দুইটি বিমান দেখা যাচ্ছে, তাকে বলা হয় fuselage। এক একটা fuselage 73 মিটার লম্বা হয়ে থাকে। এই অদ্ভুত ডিজাইনের কারণে এই বিমানটি অন্যান্য সকল বিমান থেকে আলাদা। এই বিমানটির রয়েছে 28 টি হুইল। ডান পাশে ফিউজলেস এর পাইলট, কো-পাইলট সবাই মিলে প্লেন নিয়ন্ত্রণ করে থাকে । বামপাশের ফিউজলেসে কোন পাইলট থাকেনা। বিমানটি লম্বায় 117 মিটার এবং উচ্চতা 15 মিটার। বিমানটি প্রতি ঘন্টায় 853 কিলোমিটার গতিবেগ নিয়ে উড়তে সক্ষম।

আরও পড়ুনঃ কিছু আচার্যজনক ট্র্যাক

super guppy

এই বিমানটি মহাকাশ সংস্থা নাসা দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়ে থাকে। এই বিমানের উড়ান শুরু হয় হাজার 1965 সালে। এটি কার্গো ফিলায়িট হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে থাকে। এটি লম্বায় 43.84 মিটার উচ্চতা 14.78 মিটার । এই বিমানটির ওজন প্রায় ৪৪ হাজার কেজি। প্রতি ঘণ্টায় ৪৬৩ কিলোমিটার বেগে আকাশে উড়তে পারে। এই বিমান টি কে অনেকে মনস্টার সুপার নামে ডেকে থাকে।

Airbus A380

প্রথমে এই বিমানটির নাম Airbus AXX ছিল। পরবর্তীতে এই বিমানটি নামকরণ করা হয় এয়ারবাস A380 । এই বিমানটিতে রয়েছে চৌদ্দটি বিশাল ইঞ্জিন । যা ইউরোপিয়ান ইয়ারবাসের কর্তৃক নির্মিত। এটা পৃথিবীর মধ্যে সবথেকে বড় প্যাসেঞ্জার বহনকারী বিমান। এই বিমানটি যখন কোন এয়ারপোর্টে ল্যান্ড করে থাকে, তখন থেকে আলাদা আলাদাভাবে নজরদারি করতে হয়। এই বিমানে 555 জন প্যাসেঞ্জার একসাথে ভ্রমণ করতে পারে। এই বিমানটি ৩.২০ লক্ষ লিটার পরিমাণ জ্বালানি নিয়ে আকাশে উড়তে পারে। বিমানটি 73 মিটার লম্বা। কিন্তু বিমানটির উইং এরিয়া 79.75 মিটার।

Antonov An-225 Mriya

এই বিমানটি পৃথিবীর সকল বিমানের মধ্যে বড় বিমান। এই বিমানটি হলো একটি কার্গো বিমান। এই বিমানটি সবচেয়ে ভারী বিমান গুলোর মধ্যে একটি । যার ওজন ৭১০টন। বিমানটির পাখা 210 ফিট লম্বা। সবকিছু মিলিয়ে এই বিমান যেমন অদ্ভুত তেমনি এই বিমানটি দেখতেও সুন্দর। এই বিমানটি প্রথমে রকেট বুস্টার পরিবহন করার জন্য তৈরি করা হয়েছিল। পরবর্তীতে এই বিমানটিকে অন্যসব সাধারণ বিমানের মত ব্যবহার করা হচ্ছে।

Boeing C-17 Globemaster III

এটা একটা বিশাল মিলিটারি ট্রান্সপোর্ট Aircraft. এটা আমেরিকার এয়ার ফোর্স এর জন্য তৈরি করা হয়েছে। এটি সেনাদের বিভিন্ন হাতিয়ার এবং প্রয়োজনীয় সকল জিনিসপত্র বহনের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে। এই বিমানের পাইলট, কো-পাইলট এবং রোডমাস্টার এই তিনজন মিলে সবকিছু নিয়ন্ত্রণ করে থাকে। এটা লম্বায় 53 মিটার । এর উইং 51.75 মিটার এবং উচ্চতা 16.8 মিটার। বিমানটি 1 লাখ 35 হাজার লিটার জ্বালানি নিয়ে আকাশে উড়তে পারে। যার ফলে এই বিমানটি অনেক লম্বা সময় ধরে আকাশে উড়তে পারে।

Airbus Beluga

এই বিমানটি এয়ারবাস সুপার ট্রান্সপোর্ট নামেও পরিচিত। এটা বানাতে 183 মিলিয়ন ইউরো খরচ হয়েছিল। বিমানটি লম্বায় ৫৬.১৫ মিটার। এই বিমানের উইং ৪৪.১৫ মিটার। এই বিশাল বিমানটির ওজন ৮৬ টন। এই বিমান বিভিন্ন ভারী ভারী জিনিসপত্র বহনের জন্য ব্যবহার করা হয়ে থাকে।

Boeing 747 reflector

এই বিমানটি উড়ান কার্য শুরু হয় 9 সেপ্টেম্বর 2006 সালে। এটা কোরিয়ান এয়ার, ব্রিটিশ এবং আটলান্টিসের আওতাধীন। এই বিমানটি উচ্চতা 70 ফিট। এটার টেক অফ রানওয়ে 2804 মিটার। এই বিমানটি 2 লাখ লিটার পর্যন্ত জ্বালানি বহন করতে সক্ষম। এই বিমানের পাখা 64.4 মিটার । এটা লম্বা ৭১.৬৮ মিটার। এটার উইং এবং চারটি ইঞ্জিনীর কারণেই এটা দেখতে খুবই অদ্ভুত মনে হয়।

Lockheed c5 galaxy

এই বিমানটি সৈন্য বহনকারী বিমান গুলোর মধ্যে সবথেকে বড় একটি বিমান । এই বিমানটি ওজন এক লাখ 72 হাজার 400 কেজি। বিমানটির উইং ৬৮ মিটার লম্বা। এই বিমানটি আমেরিকান এয়ার ফোর্স এর জন্য তৈরি করা হয়েছে। এই বিমানের পাখাতে জ্বালানি ট্যাংক এর সিস্টেম করা রয়েছে। এটি লম্বায় ৭৫.৩১ মিটার। এর উচ্চতা 8.4 মিটার বিমান । এর টেক অফ এবং ল্যান্ডিং করার জন্য ১৬০০ মিটার রানওয়ের এর প্রয়োজন হয়।

Leave a Comment